Wednesday , November 13 2019
Home / লাইফ-স্টাইল / দাঁড়িয়ে পানি পান করলে যেসব ক্ষতি হয়
দাঁড়িয়ে পানি পান
image source: tipstoremember

দাঁড়িয়ে পানি পান করলে যেসব ক্ষতি হয়

জল ছাড়া আমাদের বেঁচে থাকা অসম্ভব। কিন্তু আপনার কী জানা আছে পানি পানের সঠিক পদ্ধতি? বিশ্বের প্রায় ৪৫ হতে ৫০% মানুষেরই এই বিষয়ে কোন জ্ঞান নেই। ফরে পানি পান করে সবাই তেষ্টা তো মেটাচ্ছে কিন্তু সেই সাথে শরীরেরও মারাত্মক ক্ষতি সাধন করছে তারা। যেমন ধরুন, কখনোই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে পানি পান করা উচিৎ নয়।

পানি পান করা মাত্র আমাদের শরীরের উপস্থিত একাধিক ছাঁকনি সেই পানিতে উপস্তিত ক্ষতিকর উপদানকে ছেঁকে নিয়ে শরীরের বাইরে বের করে দিচ্ছে। এখন যদি এই ছাঁকনিগুলো ঠিকমত কাজ করতে না পোরে তাহলে কী হবে একবার ভেবে দেখেছেন? পানিতে উপস্থিত অস্বাস্থ্যকর উপাদানগুলি রক্সে মিশতে শুরু করবে।

ফলে এক সময় গিয়ে শরীরের টক্সিনের মাত্রা এতটাই বেড়ে যাবে যে একাধিক অঙ্গের উপর তার খারাপ প্রভাব পড়তে শুরু করবে। তাই বিশেষ কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা একান্ত প্রয়োজন। যেমন: দাঁড়ানো অবস্থায় কখনোও পানি পান করবেন না। কারণ এমনটি করলে শরীরের ভেতরে থাকা ছাঁকনিগুলো আরও সংকুচিত হয়ে পড়বে। ফলে ঠিকমত কাজ করতে পারেনা, আর এমনটা হলে কী ক্ষতি হতে পারে তা নিশ্চয় কারও এখন অজানা থাকার কথা নয়।

আর এখানেই শেষ নয়, দাঁড়িয়ে পানি পান কররে শরীরে আরও নানাভাবে ক্ষতি হয়।

এক নজরে দেখে নিন দাঁড়িয়ে পানি পান করলে কী হয়:

১। বদ হজম হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে: বসে থাকাকালীন পানি পান করলে পেটের অন্দরের সব পেশী ও নার্ভস সিস্টেম অনেক বেশি রিলাক্সং স্টেটে থাকে। ফলে ক্ষমতা বিগড়ে যাওয়ার আশঙ্কা একবারে কম থাকে। কিন্তু যদি দাঁড়িয়ে কিছু খাবার বা পানি পান করেন, তাহলে একেবারে উল্টো ঘটনা ঘটে। ফলে গ্যাস, অম্বলের সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা থাকে।

২। জিইআরডি তে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে: দাঁড়িয়ে থাকাবস্থায় পানি খেলে তা সরাসরি ইসোফেগাসে গিয়ে ধাক্কা মারে। ফলে এমনটা হতে থাকলে এক সময় গিয়ে ইসোফেগাস এবং পাকস্থলীর মধ্যেকার সরু নালীটি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ফলে ‘গ্যাস্ট্রো ইসোফেগাল রিফ্লাক্স ডিজিজ’ এর মতো জটিল রো শরীরে বাসা বাঁধতে পারে।

৩। অ্যাংজাইটি লেভেল বেড়ে যায়: একাদিক গবেষণায় প্রমাণিত যে, দাঁড়িয়ে পানি খেলে একাধিক নার্ভ প্রদাহ সৃষ্টি হয়। ফলে কোন কারণ ছাড়াই মানসিক চাপ বা অ্যাংজাইটি বাড়তে শুরু করে।

৪। পানি খেলেও তৃষ্ণা মেটে না: স্ট্রোমাকে কম বেশি প্রায় দেড় লিটার জমতে পারে। এই পরিমাণ পানি যখন আমরা একেকবারে খেতে পারি না তখন বারে বারে তেষ্টা পেতে শুরু করে। একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে দাঁড়িয়ে পানি পান করলে শরীরের একাদিক জায়গা বাঁধা পেতে পেতে শেষে স্ট্রোমাকে এসে যেটুকু পানি জমা হয়, তাতে তেষ্টা পুরোপুরি মেটে না।

৫। কিডনি ক্ষতিগ্রস্থ হয়: আগেই আলোচনা করা হয়েছে যে, দাঁড়িয়ে পানি পান করলে শরীরের অন্দরের থাকা একাদিক ফিল্টার ঠিকমত কাজ করতে পারেনা। ফলে পানি পানের মধ্যে থাকা একাদিক ক্ষতিকর উপাদান কিডিনিতে এসে জমা হয়। ফলে কিডনির মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়।

৬। পাকস্থলীর ক্ষত সৃষ্টি: দাঁড়িয়ে পানি পান করলে তা সরাসরি পাকস্থলীতে গিয়ে আঘাত করে । সেই সাথে স্ট্রোমাকে উপস্থিত অ্যাসিডের কর্মক্ষমতাও কমিয়ে দেয়। ফলে বদ হজম হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

৭। আর্থ্রাইটিস রোগে আক্রান্ত হওয়া আশঙ্কা থাকে: দাঁড়িয়ে পানি পান করার সাথে এ রোগের সরাসরি যোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে শরীরের অন্দরে থাকা কিছু উপকারি রাসায়নিকের মাত্রা কমতে শুরু করে। ফলে মানব শরীরের হাড়ের জয়েন্টের কর্মক্ষমতা কমে যাওয়া সম্ভবনা কয়েকগুণ বেড়ে যায়।

তথ্য: সংগ্রহীত।

Check Also

দাঁতের হলুদ দাগ

দাঁতের হলুদ দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়

একটা হাসিতেই বিশ্বজয় করা যায়। এই কথা তো আমরা অনেকেই শুনেছি। কিন্তু এই হাসি যদি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!