Home / লাইফ-স্টাইল / নখ দেখে বুঝে নিন শরীরে কোন রোগ বাসা বেঁধেছে কিনা
image: google

নখ দেখে বুঝে নিন শরীরে কোন রোগ বাসা বেঁধেছে কিনা

আপনার নখ ‍নিশ্চই সুন্দর তাই না? আর কে না চায় বলুন নিজের নখ সুন্দর রাখতে। এমন অনেকে আছেন নখের পেছনে যারা দিনের অনেকটা সময় ব্যয় করে থাকেন। আবারও অনেকেই হাত ও পায়ের নখ সুন্দর করে সাজিয়ে তুলতে মোটা অঙ্কের টাকাও খরচ করেন। কিন্তু আপনি জানেন কি নখের বর্ণ দেখে আমাদের শরীরের ভিতরে ধীরে ধীরে বাড়তে থাকা নানা রোগের লক্ষণ বোঝা সম্ভব! কেননা নখের সাথে শরীরের একটা সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জাড়িত।

এক নজরে দেখে নিন সেসব লক্ষণ:

নখের উপরে নীলচে দাগ: নখের গোড়াযর উপরের দিকে যদি হালকা নীলচে দাগ বা নীলচে আভা দেখতে পান তবে বুঝতে হবে শরীরে পরিমিত পরিমাণ অক্সিজেন পাচ্ছে না। ঘটছে অক্সিজেনের ঘাটতি অর্থাৎ আপনি হয়তো অক্সিজেন স্বল্পতায় ভুগছেন। আপনাকে এক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া উচিত । এছাড়াও ফুসফুস ও হার্টের যদি কোনও সমস্যা থেকে থাকে তবে তা থেকেও নখের রঙ নীল হয়ে যায়। যেটা নিঃন্দেহে একটি বিপদের লক্ষণ।

নখের মাঝে দাগ পড়া: নখের মাঝখানে যদি আড়াআড়িভাবে দাগ থাকে তাহলে বুঝতে হবে যে শরীরের কোনও সমস্যা থেকে তা ভালো হওয়ার দিকে যাচ্ছে। এ কারণে নখের গঠন বাধা পাচ্ছে। তাই মাঝে মাঝেই আপনার নখ পরীক্ষা করুন।

নখে শুকনো ভাব: যারা বেশি বেশি পানির কাজ করেন বা পানিতে বেশিক্ষণ ধরে থাকেন, যেমন সাঁতার কাটা প্রভৃতি তাদের হাতের নখ বেশি শুষ্ক হয়। ফলে তা ভঙ্গুরও হয়ে থাকে। যেটি শরীরর সুস্থ্যতার লক্ষণ নয়।

নখের চারপাশে গাঢ় দাগ: নখের চারদিকে যদি গাঢ় দাগের সৃষ্টি হয় তবে তা বুঝতে হবে যে লিভারের সমস্যার দিকে এগোচ্ছে। নখের ভেতরের অংশ সাদা হয়ে আসে এই অবস্থাতে। লিভারের রোগ অত্যন্ত ভয়ানক ও এর চিকিৎসা ব্যয়বহুল।

নখে হলদে ভাব সৃষ্টি: নখের মধ্যে যদি হলুদ দাগ থাকে তবে তা থেকে সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেমন: থাইরয়েড, জন্ডিস এর মতো রোগ হতে পারে। নখে ছত্রাকের আক্রমণ থেকেও হতে পারে। নখের রং যদি হলুদ হতে শুরু করে এবং ক্রমশ শক্ত মোটা হয়ে যায় তবে তা নখে ছত্রাকের আক্রমণ থেকে হতে পারে। অনেক সময় অতিরিক্ত নেলপলিশ পরার ফলেও এই সমস্যা দেখা দেয়। তবে নেলপলিশ ব্যবহার করার সময় একটু সাবধানে ব্যবহার করুন।

তথ্য: সংগ্রহীত।

Check Also

সচেতন মানুষরা যে ভুলগুলো ২য় বার করে না

জীবনে চলার পথে ভুল হবে এটাই স্বাভাবিক। তবে এসব ভুল একবার করার পরেই আমাদের সতর্ক ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!