Monday , September 16 2019
Home / স্বাস্থ্য / যে উপসর্গে বুঝবেন কিডনির সমস্যা হতে চলেছে
কিডনির সমস্যা
image source: griswoldhomecare

যে উপসর্গে বুঝবেন কিডনির সমস্যা হতে চলেছে

সুস্থ্য জীবন-যাপনের কিডনির সু্স্থ্যতার জন্য কিডনির কোন বিকল্প নেই। প্রয়োজন শুধু সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত। আমাদের দেশের প্রায় ২ কোটিরও বেশি মানুষ কিডনি রোগে আক্রান্ত। যারা দীর্ঘদিন ধরে উচ্চ রক্তচাপ এবং ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত। তারা দেরি না করে অতি শীঘ্রই কিডনি পরীক্ষা করিয়ে নিন। পরীক্ষা করে জানুন আপনার কিডনি ঠিক আছে কিনা।

যদি সমস্যা থাকে তবে ডাক্তারের মতানুসারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন। ইতিমধ্যে যারা কিডনি রোগে আক্রান্ত রয়েছেন, সাথে উচ্চ রক্তচাপ এবং ডায়াবেটিসও আছে তারা রক্তচাপ এবং রক্তে সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখুন। এত কিডনির সমস্যাও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

আমাদের দেশে কিডনি বিকলের একটি অন্যতম কারণ হচ্ছে যে ডায়রিয়া। ডায়রিয়ার ফলে দেহে পানিশূন্যতা দেখা দেয়। আর এর ফলে শিশু এবং বড় উভয়ের কিডনি বিকল হওয়া সম্ভনা থাকে। এছাড়াও মহিলাদের প্রসাবের ইনফেকশনও কিডনি উপর বিরুপ প্রভাব ফেলে। জরায়ু ক্যান্সার, ইউরিন ইনফেকশন থাকলে তাড়াতাড়ি এর চিকিৎসা করানো উচিৎ। সময়মত চিকিৎসা না করালে কিডনি বিকল হয়ে যেতে পারে। কিডনির এ সমস্যাকে বলা হয় নীরব ঘাতক। কেননা কোন উপসর্গ ছাড়াই আপনার কিডনি বিকল হয়ে যেতে পারে।

এক নজরে দেখে নিন কিডনি বিকল হওয়ার উপসর্গ:

১। মুখ, চোখের কোল যতি হঠাৎ অস্বাভাবিকভাবে ফুলে ওঠে; তাহলে অবশ্যই সর্তক হতে হবে। কারণ কিডনির সমস্যা হলে এমনটি হতে পারে।

২। বারবার প্রসাবের তাড়া অনুভূত হলে সাবধান হওয়া জরুরী। কারণ কিডনি ঠিকভাবে কাজ না করলে এই সমস্যা দেখা যায়।

৩। হঠাৎ করে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে গেলে ডাক্তারের পরমর্শ নেওয়া জরুরি। অনেক সময় কিডনি বিকল হয়ে পড়লে শরীরের ক্ষতিকর পদার্থগুলো জ্বমে ত্বককে শুষ্ক ও রুক্ষ্ম করে দেয়।

৪। হাত, পা বা পিঠের পেশিতে ঘন ঘন অস্বাভাবিক টান বা খিঁচুনি হরে সর্তক হওয়া জরুরি। কারণ কিডনির অসুখ হলে এমনটি হতে পারে।

৫। কিডনির সমস্যা থাকলে একাধিকবার মূত্রথলিতে সংক্রমণ হতে পারে। এছাড়াও প্রসাবের সময় জ্বালা বা ব্যথা হতে পারে।

৬। গোড়ালী বা পায়ের পাতা হঠাৎ অস্বাভাবিকভাবে ফুলে গেলে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন।

৭। পিঠের দিকে , ঠিক কোমরের একটিু উপরে যদি ঘন ঘন ব্যথা অনুভব করেন তাহলে অবশ্যই সর্তক হওয়া জরুরি। কিডনি ঠিকভাবে কাজ না করলে অনেক ক্ষেত্রে প্রেসারে সাথে রক্ত চলে আসতে পারে।

৮। কিডনির সমস্যায় ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে।

৯। রক্তচাপের দ্রুত ওঠানামা, অল্পপরিশ্রমেই ক্লান্ত হয়ে পড়া, অল্পতে হাঁপিয়ে ওঠা, শ্বাস প্রশ্বাসের কষ্ট হওয়ার পেছনেও কিডনি সমস্যা থাকতে পারে।

১০। অনকে সময় কিডনি ঠিকমত কাজ না করলে প্রসারে সাথে রক্ত চলে আসতে পারে। এ ধরণের সমস্যাগুলো ফেস করলে অতিদ্রুত ডাক্তার দেখান।

এই পোস্টটি আপনার কাছে কেমন লেগেছে ? সংক্ষেপে কমেন্ট করে জানান আমাদের। T = Thanks, V= Very good, E= Excellent আপনাদের কমেন্ট পেলে আমরা নতুন ও ভালো ভালো পোস্ট করতে উৎসাহ পাই।

তথ্যসূত্র: সংগ্রহীত।

Check Also

দ্রুত মেদ কমানের উপায়

শরীরের মেদ দ্রুত ঝড়ানোর টিপস

খেতে আপনি নিশ্চয়ই ভালোবাসেন? হ্যাঁ আপনিও খেতে ভালোবাসেন আমিও ভালোবাসি। আর আজকের দিনের ট্রাডিশনাল রান্নার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *